বিয়ের রাতে বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে কনের মৃত্যু।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৪-০১-২৬, ১১:১২ অপরাহ্ন /
বিয়ের রাতে বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে কনের মৃত্যু।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,২৬, জানুয়ারি,২০২৪

মেহেদী হাসান শাহীন, গাজীপুর প্রতিনিধি।

গাজীপুরের টঙ্গীতে সাত তলা ভবনের ছাদ থেকে পরে সাদিয়া আক্তার (২২) নামে মিরপুর বাংলা কলেজের অনার্স পড়ুয়া এক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গী বাজারের গুড় পট্টি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। 

নিহত সাদিয়া ঢাকার দোহার থানার আব্দুল বাশার বাচ্চুর মেয়ে। সে মিরপুর বাংলা কলেজের অনার্সের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তারা স্বপরিবারে টঙ্গী বাজারের গুড় পট্টি এলাকার জৈনিক সাইদ মাদবরের বাড়ির ষষ্ঠ তলায় ভাড়া থাকতেন। 

জানা যায়, নিহত সাদিয়া বিকেলে বাড়িওলার বাসা থেকে চাবি নিয়ে ছাদে উঠে বাচ্চাদের নিয়ে খেলা করছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার তার গায়ে হলুদ হয়। আজ শুক্রবার বিয়ের কাবিন হওয়ার কথা ছিলো।

নিহতের ছোট বোন সামিয়া বলেন, আপুর সাথে আমিও ছাদে ছিলাম। আপু রেলিং বসে চুল শুকাচ্ছিলো। আমি আপুকে সতর্ক করে বাসায় চলে আসি। এর কিছুক্ষন পর আপুর মৃত্যুর খবর পাই।

খবর পেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানার এসআই মনির হোসেন লাশ উদ্ধার করেন।

নিহতের মা তাহমিনা আক্তার কলি বলেন, আমার মেয়ের বিয়ে ঠিক ছিলো। কয়েকদিনের মধ্যেই তার বিয়ে হতো। আমরা যে ছেলের সাথে বিয়ে ঠিক করেছি তারও পছন্দ ছিলো। আমরা মেয়ের বিয়ে নিয়ে কোন জোর জবরদস্তি করিনি আর সাদিয়া মৃত্যুর আগেই তার মোবাইল ভেঙে ফেলেছে।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, মেয়েটির গতকাল গায়েহলুদ ছিল। আজ শুক্রবার কাবিন হওয়ার কথা। মনে হয় মেয়ের অমতে বিয়ের কারণে মৃত্যুর ঘটনা হয়ে থাকতে পারে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।