৫৪ কোটি ৪৪ লাখ আত্মসাতের অভিযোগে ডোমার পৌরসভা মেয়রের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা ।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২২-০৮-২৬, ১২:০২ অপরাহ্ন /
৫৪ কোটি ৪৪ লাখ আত্মসাতের অভিযোগে ডোমার পৌরসভা মেয়রের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা ।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,২৬, আগষ্ট,২০২২

তপন দাস
নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

অগ্রণী ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়াসহ ৫৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে নীলফামারীর ডোমার পৌরসভার মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানু ও দুই ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) দুদকের রংপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে সংস্থাটির সহকারী পরিচালক মো. হোসাইন শরীফ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।
মামলার আসামিরা হলেন- নীলফামারীর ডোমার পৌরসভার মেয়র ও শাওন অটো ব্রিকস লিমিটেডের এমডি মো. মনছুরুল ইসলাম দানু, অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের নীলফামারী শাখার সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক রথীন্দ্র নাথ সরকার ও মো. শফিকুল ইসলাম।
এজাহারে বলা হয়, আসামি মনছুরুল ইসলাম দানুর প্রতিষ্ঠান শাওন অটো ব্রিকস লিমিটেডের নামে ১৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ঋণ মঞ্জুর করা হয়। ঋণের মঞ্জুরিপত্রের শর্ত অনুযায়ী প্রথম কিস্তি বিতরণের পর ছাড়কৃত অর্থের ব্যবহারের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পর দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড়ের নির্দেশনা থাকলেও অগ্রণী ব্যাংক নীলফামারী শাখার ওই দুই শাখা ব্যবস্থাপক তা মেনে নেননি। ঋণের ওই টাকা পরিশোধ হয়নি। এতে চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত সুদ-আসলে ২৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ক্ষতি সাধন হয়েছে।

অপরদিকে ঋণ গ্রহীতা এলসির মাধ্যমে ২০১৬ সালের ২৩ জুন থেকে ১৩ আগস্ট পর্যন্ত মালামাল আমদানি করলেও বন্দর থেকে তা খালাস করেননি। যার কারণে তার কাছে থেকে পোর্ট ড্যামারেজ বাবদ চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ ২৭ কোটি টাকা পাওনা হয়েছে। যেখানে শুল্ক-কর বাবদ আরও ৪ কোটি ১০ লাখ টাকা রয়েছে। সব মিলিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে ৩১ কোটি ১০ লাখ টাকা পাওনা পরিশোধ না করে সরকারের আর্থিক ক্ষতি সাধন করার অভিযোগ রয়েছে।

এভাবে আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে অগ্রণী ব্যাংক নীলফামারী শাখা এবং বন্দর কর্তৃপক্ষের ৫৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকা আর্থিক ক্ষতিসাধন করায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।