১নং হরজতপুর মাদক ও চাঁদাবাজদের অত্যাচার অতিষ্ঠ ইউনিয়নের এলাকাবাসী ।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৩-১২-২৭, ৭:২৬ অপরাহ্ন /
১নং হরজতপুর মাদক ও চাঁদাবাজদের অত্যাচার  অতিষ্ঠ ইউনিয়নের এলাকাবাসী ।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,২৭,ডিসেম্বর,২০২৩

মারুফ সরকার,স্টাফ রিপোর্টার ঃ

মাদকের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান বর্তমান সরকারের। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে জিরো টলারেন্সে।
তার নির্দেশেই সারাদেশে তালিকা করা হয় শীর্ষ ছোট বড় মাদক কারবারি ও এর পৃষ্ঠপোষকদের। সরকারপ্রধানের নির্দেশেই ২০১৮ সালের ৪ মে থেকে দেশে শুরু হয় মাদকবিরোধী অভিযান। ওই অভিযানে প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। গ্রেপ্তার শুরু করে মাদক কারবারি ও এর পৃষ্ঠপোষকদের। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহতও হন অনেক মাদক কারবারি। যা সব মহলের প্রশংসা কুড়িয়েছিল সেসময়।

ঢাকা জেলাধীন কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন জনবহুল এলাকা ১নং হরজতপুর ইউনিয়ন।সাম্প্রতিক সময়ে ১নং হরজতপুর এলাকায় মাদকের উপদ্রব দিনের পর দিনে বেড়েই চলছে ।যে হারে বাড়ছে বেকারত্ব সেই হারে বাড়ছে মাদকসহ মাদকসেবীদের সংখ্যা।

সরজমিনে এলাকা খোঁজ নিয়ে তার প্রমান ও মিলেছে সাংবাদিকের কাছে।নাম প্রকাশে অনুচ্ছুক ১নং হরজতপুর এলাকাবাসী বেশ কয়েকজন এর কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন এখানকার মাদককারবারীরা খুবই খারাপ লোক তাদের নাম বলছি যদি তারা জানতে পারে তাহলে আমাদের এলাকায় থাকতে দিবেনা।

নাম প্রকাশে অনুচ্ছুক আরেক স্থানীয় একজন ব্যবসায়ী বলেন ১ নং হরজতপুর ইউনিয়নের যুবলীগ কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদে আছেন রাকিবুল ইসলাম (রিফাত)।রাকিবুল ইসলাম (রিফাত)এর চত্রছায়ায় এলাকায় ত্রাসের রাজ্যত্ব চলে।

এলাকার যুবসমাজ টাকে ধ্বংস করছে মরণোত্তর মাদক দিয়ে তার ডান হাত হিসেবে মাদকের ব্যবসা পরিচালনা করেন রাজিদুল হাসান ভুট্টু (৩৩) এবং তার সহকারীরা।তার আরেক সহযোগী রাজিদুল ইসলাম ভুট্টু বর্তমানে মাদক মামলা টেকনাফে জেলহাজতে আছেন যার মামলার জিআর নং ৪২৬/২৩।

এলাকাবাসী আরও বলেন রাকিবুল হাসান (রিফাত) শুধু মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত না তিনি সব ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চাঁদাবাজি,ভূমি দখলের সাথে জড়িত।রাকিবুল ইসলাম (রিফাত)ভয়ংকর সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের জীবননাশের ভয়ে এলাকাবাসী কোথাও কোন অভিযোগ করছে না। তারা এই সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী রাকিবুল ইসলাম (রিফাত) এর হাত থেকে ১নং হযরতপুর ইউনিয়নের যুব সমাজ ও এলাকাবাসী মুক্তি এখন সময়ের অপেক্ষায়।

অভিযুক্ত রাকিবুল ইসলাম রিফাতের নাম্বারে একাধীক বার কল দিলে ও তিনি কল রিসিভ করেন নি।