রংপুর পীরগঞ্জে স্বামীর সাথে প্রতারণা করায় স্ত্রী মিতু জেল হাজতে।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২২-০৮-২৬, ৯:৫৮ পূর্বাহ্ন /
রংপুর পীরগঞ্জে স্বামীর সাথে প্রতারণা করায় স্ত্রী মিতু জেল হাজতে।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,২৬, আগষ্ট,২০২২

রংপুর ব্যুরো আনোয়ার হোসেনঃ

রংপুরর পীরগঞ্জ উপজলার ১৫ নং কাবিলপুর ইউনিয়নর জামালপুর গ্রামর হযরত আলীর কন্যা সাবিনা ইয়াসমিন মিতু মামলার জামিনের শর্ত ভঙ্গ করায় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রট গতকাল বৃহঃপতিবার (২৫ আগস্ট-২২ইং-)জেল হাজতে পাঠানার আদেশ প্রদান করন।
মামলার বিবরনে যানা গেছ, রংপুর কোতোয়ালী মেট্রো দেওডাবা বানিয়া পাড়ার মজিবুল হকের পুত্র আকরাম হোসেন মাইনুল মিতুর বিরুদ্ধে একটি প্রতরনা মামলা দায়ের করেন। এরই পরিপ্রক্ষিতে গত ২২ শে জুন সাবিনা ইয়াসমিন মিতুক জামালপুর নিজ বাসা থেকে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ গ্রেফপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়, কয়েক দিন জেল হাজতে থাকার পর আদালতে জামিনের জন্য প্রার্থনা করিলে বিজ্ঞ আদালত সার্বিক বিষয় বিবচনা করে গত ৩০ শে জুন ২২ইং কিছু শর্ত সাপেক্ষে জামিন মঞ্জুর করেন ।

উক্ত মামলা নং সি.আর ৫৭৮/২২ ধারা ৪২০, ৪০৬, ১০৯ মামলায় জামিন পেয়ে বাদী রংপুরর ঔষধ ব্যবসায়ী (আকরাম হাসন মাইনুল) কে জানে মেরে ফেলার হুমকী ও তার এলাকার লোকজন দিয়ে ভয়ভীতি প্রদান করেন সাবিনা ইয়াসমিন মিতু গং।মিতু গংদের হাত থেকে জানে বাঁচার আকুতি জানিয় রংপুর কোতোয়ালী থানায় মাইনুল একটি জিডি করেন, জিডি নং ৯৩, এবং গত ১০ আগস্ট রংপুর সংবাদ সম্মলন করে প্রশাসন সহ রংপুরের সকল সাংবাদিকের মাধ্যমে বাঁচার আকুতি জানান মাইনুল।
এলাকাবাসীর সুত্র যানা যায় যে সাবিনা ইয়াসমিন মিতু এলাকার বিভিন্ন ছেলেদের সাথে পরকিয়ায় লিপ্ত থাকত। যখন সপ দেখলো- তার রুপে পাগল হয়ে শত শত তরুণ যূবক তার পিছু নিয়েছে, তখন থেকেই সে রুপ ও সৌদর্য্যকে পুঁজি হিসেব নিয়ে বাবা-মায়ের যোগ-সাজাশে রংপুরের কোতোয়ালী মেট্রো দেওডোবা বানিয়াপাড়া গ্রামের মজিবুল হকের পুত্র আকরাম হোসেন ওরফে মাইনুলকে মোবাইলর মাধ্যম প্রেমের ফাঁদে ফেলে তার গ্রামের বাড়ী জামালপুরে ২১ লক্ষ টাকা ব্যায় করে আলিশান বাড়ী তৈরী করে নেয় মিতু। বিয়ের নামে প্রতরণার ব্যবসা শুরু কর মিতু’র।
পূর্বের তালাকপ্রাপ্ত স্বামী মিথুন মিয়ার বিরুদ্ধে রংপুরের বিজ্ঞ পারিবারিক আদালত (পারি ১২/১৯ নম্বর) মামলা দায়ের করে। অপর তালাকপ্রাপ্ত স্বামী সরোয়ার হাসানের নিকট হইত নগদ দেনমোহরানা গ্রহণ করে ওই স্বামীকেও তালাক দেন সাবিনা ইয়াসমিন মিতু, সে বিভিন্ন ছেলের সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িত থাকায় সর্বশেষ রংপুরের ব্যবসায়ী স্বামী আকরাম হাসন মাইনুল গত ০২ আগস্ট’২০১১ইং তারিখ তালাক দেন। পরবর্তীতে পুনরায় মিতুর পরিবারর লাকজন অনুরোধ করলে ১১ আগষ্ট’২০২১ইং তারিখ রেজিষ্ট্রি কাবিননামা মুলে বিবাহ হয়। এরপর ২০ মার্চ’২০২২ইং তারিখ এফিডভিট সম্পন পুর্বক আবারও তাকে তালাক প্রদান করেন। সাবিনার শেষ স্বামী ছিল একেবারে সহজ সরল প্রকৃতির লোক । তার সব পরকিয়া,অর্থলোভী এবং দুঃশ্চরীত্রার কথা জানতে পেরে আকরাম হোসেন মাইনুল রংপুর জজ কোর্টে মিতুর বিরুদ্ধ মামলা দায়ের করেন যার মামলা নং- সিআর-৫৭৮/২২, ধারা- ৪২০,৪০৬, ১০৯।

গতকাল ২৫/০৮/২২ইং তারিখ সাবিনা ইয়াসমিন মিতু উক্ত মামলায় রংপুর জজ কোটে হাজিরা দিতে আসিলে বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট তাকে জেল-হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।