মোটরসাইকেলের হর্ন না শুনায় ছাত্রকে জবি ছাত্রলীগ নেতার মারধর।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৪-০২-০৭, ৮:৩২ অপরাহ্ন /
মোটরসাইকেলের হর্ন না শুনায় ছাত্রকে জবি ছাত্রলীগ নেতার মারধর।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,০৭, ফেব্রুয়ারি,২০২৪

জবি প্রতিনিধি

মোটরসাইকেলের হর্ণ না শোনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এক শিক্ষার্থীকে মারধর করেছে শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি পরাগ হোসেন। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী হলেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের মো. মিনহাজুল ইসলাম।

আজ বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারী) বেলা দেড়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী বিচার চেয়ে প্রক্টরের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী মো. মিনহাজুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ম গেইট দিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করার সময় পেছন থেকে হর্ন দেয় জবি ছাত্রলীগের সহ সভাপতি পরাগ হোসেন। হর্ণ শুনতে না পাওয়ায় তাকে ডেকে চড়-থাপ্পড় মারেন এবং গালিগালাজ করেন। এরপর সবার সামনে ক্ষমা চাইতে বলে। সে ক্ষমা চাইতে অস্বীকৃতি জানানোয় আবার চড়-থাপ্পড় ও কিল-ঘুষি মারেন অভিযুক্ত পরাগ হোসেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী মো. মিনহাজুল ইসলাম বলেন, আমি কিছু না করায় কেন আমাকে অন্যায়ভাবে চড়-থাপ্পড় মারলো জানি না। আমি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

অভিযুক্ত পরাগ হোসেন বলেন, আমি বাইক নিয়ে যাওয়ার সময় হর্ণ দিই। সে হর্ণ শুনে নি। তাই গাড়ি থেকে নেমে কোন ব্যাচ জিজ্ঞেস করে জাস্ট দুইটা থাপ্পর দিয়েছি। এটা খুবই ছোট ঘটনা।

এ বিষয়ে জবি ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম ফরাজী বলেন, ক্যাম্পাসে কোনো ছাত্রের গায়ে হাত তুলা অন্যায়। তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হোক। কোন অপরাধীর ঠাঁই জবি ছাত্রলীগে নেই।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তাফা কামাল বলেন, আমি অভিযোগ গ্রহণ করেছি। আগামীকাল বিভাগের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে উপাচার্যের কাছে অভিযোগ দেয়ার জন্য ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে বলা হয়েছে।