বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে প্রেরণের দাবীতে সুনামগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৩-১০-০৯, ৫:২২ অপরাহ্ন /
বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে প্রেরণের দাবীতে সুনামগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,০৯, অক্টোবর,২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার

তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন কারাগারে আটক অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত প্রেরণের দাবীতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সুনামগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির আয়োজনে শহরের পুরাতন বাসস্টেশন এলাকায় বিএনপির কার্যালয়ের সামনে থেকে প্রচন্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে ও অসংখ্যা নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে খামারখাল ব্রীজের সামনে আসার পর পুলিশ ব্যারিকেড দিয়ে আটকে দেয়। তাৎক্ষনিক সেখানেই এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য কলিম উদ্দিন মিলনের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম নুরুলের সঞ্চালনায় এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মো. আব্দুল মোতালেব,সহ সভাপতি নাদীর আহমদ,সেলিম উদ্দিন আহমদ,আবুল মনসুর মোহাম্মদ শওকত,সহ সভাপতি ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফারুক আহমদ,মো. আনছার উদ্দিন,আ ত ম সালেহ,মো. আনিসুল হক, মো. ফুল মিয়া,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক নুর হোসেন,এড. জিয়াউর রহিম শাহিন,সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম কামরুলসহ বিএনপি ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কলিম উদ্দিন মিলন ও সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম নুরুল বলেছেন,তিন তিনবারের সফল সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়াকে বর্তমান ফ্যাসিবাদি নিশিরাতের ভোটার বিহীন অবৈধ সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে অন্যায়ভাবে কারাগারে আটকে রেখেছে বলে অভিযোগ করা হয়।

অপরদিকে আগামীদিনের দেশ-নায়ক ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ও এই স্বৈরাচারী সরকার অনুরুপ একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে নির্বাসনে পাঠিয়েছেন। তারা আরো বলেন,অবিলম্বে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে প্রেরন এবং নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর করে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের গঠনের মাধ্যমে অবাদ,সুষ্ঠ,নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবী জানান। অন্যতায় জিয়ার সকল সৈনিকরা দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থেকে দূর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পদত্যাগ নিশ্চিত করে ঘরে ফেরার অঙ্গীকার পূনব্যক্ত করেন।