পটুয়াখালী ১ আসনে নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশি, আলী আশরাফের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৩-১০-১৪, ৫:২৬ অপরাহ্ন /
পটুয়াখালী ১ আসনে নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশি, আলী আশরাফের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,১৪, অক্টোবর,২০২৩

সঞ্জিব দাস গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালী ১আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপকমিটির শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সদস্য,সাবেক সদস্য প্রচার ও প্রকাশনা কেন্দ্রীয় উপকমিটি, সাবেক সদস্য নির্বাচন সমন্বয় উপকমিটি,সাবেক সহ-সম্পাদক, সাবেক সহ-সভাপতি বাংলাদেশ ছাত্র লীগ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়,সাবেক
সদস্য, বিএমএফ কলেজ বরিশাল, ও সাবেক সমাজকল্যাণ সম্পাদক পটুয়াখালী জেলা ছাত্র লীগ, এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক এবংকলামিস্ট, সম্পাদক ও প্রকাশক দৈনিক বাংলাদেশ বুলেটিন ও দি বেঙ্গল এক্সেপ্রেস এর মো, আলী আশরাফ জেলার কর্মরত টেলিভিশন ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। অদ্য ১২ অক্টোবর সকাল ১১ টার সময় পটুয়াখালী শহরস্থ পাওয়ার হাউজ সংলগ্ন আল-আমিন টাওয়ার এর নিচ তলায় এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় তিনি বক্তব্যে গনমধ্যমকে তিনি বলেন,,প্রিয় সহযোদ্ধা সুধী ও পটুয়াখালী জেলার কর্মরত বিভিন্ন পত্রিকা, টেলিভিশনের সাংবাদিক এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের জানাই মুজিবীয় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।আমি মোহাম্মদ আলী আশরাফ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে দৃঢ় বিশ্বাসী এবং আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নেতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার একজন নিবেদিতপ্রাণ ও অনুগত কর্মী হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে সামনে অগ্রসর হওয়া একজন রাজনীতিবিদ। বঙ্গবন্ধুর অবিনাশী আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে সবসময় আমি পথ চলি। আমি আমার রাজনীতির দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আওয়ামী লীগের অসহায় কর্মী ও এলাকার দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করি। এবং মানব কল্যাণে নিজেকে সমার্পণ করার মধ্যে থেকে নিবেদিতপ্রাণে কাজ করার ক্ষেত্রে সচেষ্ট থাকি।

এসময় তিনি আরো বলেন, জনমানবের সেবায় সবসময় নিজেকে উজার করে দেওয়াই আমার রাজনৈতিক জীবনের একমাত্র ব্রত। তাই নিজেকে পটুয়াখালীর মানুষের কল্যাণে
আজীবন উৎসর্গ করে এই জনপদের অর্থাৎ পটুয়াখালী-(০১) সদর, দুমকি ও মির্জাগঞ্জ-এর সর্বস্তরের মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত পাশে থাকতে চাই। সেক্ষেত্রে কাজের সুবিধার্থে একটি প্লাটফর্ম। আর সেই প্লাটফর্মটি হলো আজীবনের লালিত স্বপ্ন জাতির পিতার গড়া দল, দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগের একজন নিবেদিত কর্মী ও নেতা হিসেবে আমি আশরাফ পটুয়াখালী-(০১) এর প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিক ভাবে আপনাদের মাধ্যমে ঘোষণা করছি। ইতিপূর্বে আপনাদের কল্যাণে আমি যেসব কাজগুলো করেছি এবং ভবিষ্যতে যা করতে চাই সেসব পরিকল্পনাসহ আমার কর্মজীবনের সকল বিষয়গিলো তুলে ধরেন,আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির শুরু থেকেই বাংলাদেশের ছাত্রলীগের সঙ্গে জড়িত ছিলাম। আমি ২৮ বছর ধরে ছাএলীগ ও আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নিযুক্ত আছি। ১৪ (চৌদ্দ) বছর ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়সহ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগে ছিলাম দির্ঘ ১৪ বছর। শুধু তাই নই, আমার পরিবারও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। আমার বাবা একজন আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর তঙ্ক ও অনুসারী ছিলো।

অন্যদিকে আমার মা স্থানীয় মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী
ছিলেন। আমাৰ ভাই পাংগাশিয়া ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। আমার মামা আব্দুর রব হাওলাদার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য (জালাল জাহাঙ্গীর পরিষদ) ছিলেন এবং সাবেক জেলা জজ। আমার ছোট মামা (অন.) অগ্রণী ব্যাংক কর্মচারী ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি। আমি পটুয়াখালী জেলার নুমত্তি উপজেলার পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়নে স্বনামধন্য পরিবারের সন্তান। আমার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। আজমত গ্রুপের চেয়ারম্যান শিল্পপতি ড. আতাহার উদ্দিন আমার চাচাতো ভাই। আমি প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ও জনাব জাহাঙ্গীর কবির নানক ভাইয়ের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে সব রাজনৈতিক আন্দোলন-সংগ্রামে এবং দলীয় কর্মকাণ্ডে সক্রিয় অংশগ্রহণসহ নিযুক্ত আছি। ওয়ান-ইলেভেনের সময় আমার প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনকে সেল্ডার করা হয়, তখন প্রিয় নেত্রীকে মুক্ত করার লক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যে আন্দোলন হয়, সেখানে আমি সক্রিয়ভাবে নেতৃত্ব দেই। আমি সবসময় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সকল আন্দোলন-সংগ্রামে ছিলাম। আমি সবসময় আওয়ামী লীগের দলের প্রতি অনুগত থাকতে সচেষ্ট থাকি।
এছাড়াও আমি একজন কলামিস্ট এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে, আমি আমার লেখালেখি এবং টিভি অনুষ্ঠানের বক্তৃতায় বিএনপি- জামায়াতের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সবসময় সোচ্চার থাকি। আমি ডেইলি বাংলাদেশ বুলেটিন ও The Daily Bengal
Express-এ সম্পাদক ও প্রকাশক। আনখ এই দৈনিক পত্রিকা দুটি আশুৰামী লীগের মুখপত্র হিসেবে জাতির কাছে সরকারের উন্নয়ন ও দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম তুলে ধরে। আমি সর্বদা আমার এলাকার স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও মানুষের জন্য কাজ করি, সেখানে দলের অবস্থানকে সুসংহত করি এবং জনগণের ভালো-মন্দে পাশে থাকি এবং তাদের সঙ্গে সর্বদা
সুখ-দুঃখ ভাগ করে নিই। পটুয়াখালী-০১ (সদর, দুমকি ও মির্জাগঞ্জ) আসনের জন্য তার নির্দেশনায় কাজ করে যাচ্ছি বলে জানান।

তার উদ্দ্যোগে উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন পটুয়াখালী- (০১) আসনে বিগতদিনে যে সকল কাজ করেছেন তার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-এর ত্রাণ তহবিল থেকে প্রায় ৮ কেটি টাকার চেক বিতরণ, স্থানীয় গরিব অসহায় হতদরিদ্র -দুঃখি, অসহায় মানুষের মাঝে। পাশাপাশি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকার চেক বিতরণ নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ২ কোট টাকার সাহায্য মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, চিকিৎসা, বিবাহ ও সমাজসেবামূলক কাজে প্রদান করেন। নিজ এলাকায় দুমকি জনতা কলেজ সরকারিকরণে সহায়তা। লেবুখালী হাবিবুল্লাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণে বিশেষ অবদান। বদর পুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় এমপিও করণে সহায়তা। পাংগাশিয়া মাদ্রাসায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে একাডেমিক ভবন নির্মান।