টুঙ্গিপাড়ায় হাই কোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে মার্কেট নির্মানের অভিযোগ ভুক্তভোগীর।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৩-১০-২৮, ১১:০৯ পূর্বাহ্ন /
টুঙ্গিপাড়ায় হাই কোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে মার্কেট নির্মানের অভিযোগ ভুক্তভোগীর।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,২৮, অক্টোবর,২০২৩

মোঃ শিহাব উদ্দিন গোপালগঞ্জঃ

গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার সিংগিপাড়ার বাজার মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় মৃত আবুল হাসেম শেখের ছেলে আবুল কালাম আজাদের ও তার ভাই লেঃ জেনারেল মামুন খালিদের ক্রয়কৃত ১৭শতাংশ জমি জোর দখল করে মার্কেট নির্মান করছে এলাকার প্রভাবশালী মহল।
অভিযোগ সূত্রে সরেজমিনে গেলে দেখা যায়, আবুল কালাম আজাদের অভিযুক্ত যায়গায় মার্কেট নির্মান কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
ভুক্তভোগী মোঃ আবুল কালাম আজাদ মাস্টার গনমাধ্যম কর্মীদের বলেন, আমি সিংগিপাড়া মসজিদ সংলগ্ন ১৮২৭ নং দাগের ১৭ শতাংশ জমি ক্রয় করি ২০১১ সালে ক্রয় করে সেখানে ওয়াল বাউন্ডারী করে মাটি ফেলে পরবর্তীতে কাজ করবো বলে রেখে দেই। আমি যে মালিকের কাছ থেকে জায়গাটা কিনেছি সে ঐ যায়গাটা আমার ক্রয় করার দেড় বছর পরে একই এলাকার বাসুড়িয়া গ্রামের কায়সার খাঁ এর ছেলে নাজমুল খাঁ, বাবর আলী খাঁ ও সোহেল খাঁ টাকা ও ক্ষমতার জোরে ক্রয় করে জোর করে নির্মান কাজ শুরু করলে আমি বাঁধা দেই।আমার বাঁধা উপেক্ষা করে তারা কাজ করতে গেলে আমি নিন্ম আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। নিন্ম আদালতে কোন সুফল না পেয়ে আমি সর্বচ্চো আদালতে একটি মামলা দায়ের করি মামলা চলাকালীন সময়ে মামলা উপেক্ষা করে তারা নির্মান কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এ ব্যপারে ১৫ ই অক্টোবর টুঙ্গি পাড়া থানায় কাজ বন্ধের একটি অভিযোগ দায়ের করি টুঙ্গিপাড়া থানার এস,আই বদিয়ার সরেজমিনে এসে কাজ বন্ধের কথা বলে গেলেও ক্ষমতাশালীরা কাজ বন্ধ করে নাই আমি তার পর খেকে বার বার টুঙ্গিপাড়া থানায় বার বার সাহায্যে চায়লেও থানার পক্ষ থেকে কোন সহযোগীতা আমি পাই নাই। উপরন্ত টুঙ্গিপাড়া থানার এস,আই আমার বিপক্ষের লোকেদের সাথে আতাত করে আমার জায়গাকে বেদখল করার জন্য যা যা করার তাই করেছে। আমি এই মূহুর্ত্বে অত্যাচারিত হয়ে মহামান্য আদালত ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন সহ হস্তক্ষেপ কামনা করছি যাতে করে এই জালেম, জোর দখল কারী এই ভুমি দস্যূরা আমার জায়গায় কাজ করতে না পারে।
ভুক্তভেগী আবুল কালাম আজাদ আরো বলেন, গোপালগঞ্জ থানার এস,আই বদিয়ার ঘটনা স্থলে এসে কাজ বন্ধ করে সকলকে কাগজাদী নিয়ে থানায় আসতে বললেও থানায় গিয়ে তাকে পাই নাই। তার নিকট ফোন করলে তিনি দুরে আছেন বলে বিভিন্ন ছলে ছুতে ব্যপারটা এড়াতে থাকে।

এ ব্যপারে জমিতে নির্মান কাজ করা নাজমুল খাঁ বলেন, এই জায়গা আমরা ক্রয় করেছি, ক্রয় সূত্রে এই যায়গার মালিক আমরা, আমাদের জমিতে আমি কাজ করছি। কারোর জমি দখল করে নয়।
ঘটনার সত্যতা যাচা্ইয়ের জন্য টুঙ্গিপাড়া থানার এস,আই বদিয়ারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ পাওয়া মাত্রই আমারা ঘটনাস্থলে যাই। কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়ে উভয় পক্ষকে তাদের কাগজাদী নিয়ে থানায় যাওয়ার নির্দেশ দেই। পরবর্তীতে কি হয়েছে তা আমি জানিনা।