জবির এআইএসডিএফ’র ‘নবীন বরণ ও বিতর্ক কর্মশালা-২০২৪’ অনুষ্ঠিত।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৪-০১-১৮, ৪:৪১ অপরাহ্ন /
জবির এআইএসডিএফ’র ‘নবীন বরণ ও বিতর্ক কর্মশালা-২০২৪’ অনুষ্ঠিত।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,১৮, জানুয়ারি,২০২৪

জবি প্রতিনিধি

পরমতসহিষ্ণুতা ও যুক্তির জোর দিয়ে বিতর্কের মাধ্যমে পরিবর্তনের স্রোতে নতুনত্বের সাথে নতুনদের আলিঙ্গন করতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস ডিবেট ফোরাম (এআইএসডিএফ) কতৃর্ক “নবীন বরণ ও বিতর্ক কর্মশালা-২০২৪” অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রায় শতাধিক নবীন বিতার্কিকদের প্রশিক্ষণ দিলো ঐতিহ্যবাহী এই সংগঠনটি।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি, ২০২৪) একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের ৩১৫ নং কক্ষে অর্ধদিনব্যাপী এআইএসডিএফ কতৃর্ক এ বিতর্ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিতর্ক কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন এআইএসডিএফ এর সাবেক সভাপতি সবুজ আহম্মেদ শিমুল।

এতে অতিথি হিসেবে বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় নবীনদের পাশাপাশি সংগঠনের বর্তমান বিতার্কিকগণও উপস্থিত ছিলেন। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিতার্কিকদের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছিল সময়টি। কর্মশালা শেষে প্রশিক্ষক সবুজ আহম্মেদ শিমুলকে ডিবেট ফোরাম থেকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

বিতর্ক কর্মশালার প্রশিক্ষক সবুজ আহম্মেদ শিমুল বলেন, বিতর্ক জগতে আসতে চাওয়া নবীনদের নিয়ে এধরনের আয়োজন প্রশংসনীয়। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা যে মুক্ত জ্ঞানের রাজ্যে প্রবেশ করেছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এআইএসডিএফ সেই জ্ঞানচর্চা এবং স্বাধীন চিন্তা বিকাশের সুযোগ বৃদ্ধি করে দিয়েছে। এখানে তারা সমাজের ও রাষ্ট্রের বিভিন্ন বিষয়গুলো যুক্তি তর্কের মাধ্যমে উপস্থাপনের সুযোগ সহ নিজেদের মেধা ও মননশীলতা বিকাশের সুযোগ পাবে।

এসময় এআইএসডিএফ’র সভাপতি হিরা সুলতানা বলেন, একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের নবীন বিতার্কিকদের বরণ করে নেয়া, বিতর্কের কলাকৌশল শেখানো, বিতর্ক চর্চার মাধ্যম ব্যক্তিগত উৎকর্ষ সাধনের কৌশল শেখানো আমাদের আয়োজনের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। আশা করছি নবীন হিসেবে এআইএসডিএফ এর সাথে যারা যুক্ত হয়েছে আগামীতে তারা আত্ন-উৎকর্ষতার পাশাপাশি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম বয়ে আনবে।

সাধারণ সম্পাদক রূপা আক্তার বিউটি জানান, এআইএসডিএফ এর সকল বিতার্কিকদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ এবং এই পরিবারের প্রতি সকলের ভালোবাসায় এবারের কর্মশালাকে আরও বেশি প্রানবন্ত করেছে। এই নতুন বিতার্কিকদের মাধ্যমে ডিবেট ফোরাম পাবে নতুন এক মাত্রা এটাই একান্ত কাম্য। উন্মোচিত হোক যৌক্তিক আলোচনার দুয়ার। জয়তু বিতর্ক, জয়তু এআইএস ডিবেট ফোরাম।