চাঞ্চল্যকর অপহৃত ৭ বছরের শিশু উদ্ধার র‌্যাবের হাতে অপহরণকারী রাকিব আটক।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৩-১২-০৭, ২:৪২ অপরাহ্ন /
চাঞ্চল্যকর অপহৃত ৭ বছরের শিশু উদ্ধার   র‌্যাবের হাতে অপহরণকারী রাকিব আটক।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,০৭,ডিসেম্বর,২০২৩

এস.এম.জামাল উদ্দিন শামীমঃ

চাঞ্চল্যকর ০৭ বছরের শিশু অপহরণের ঘটনায় ভিকটিম উদ্ধারসহ অপহরণকারী চক্রের মূলহোতা মোঃ রাকিব(২১) কে র‌্যাব-১৪ এর সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জের যৌথ অভিযানে আটক করা হয়েছে।

আটককৃত অপহরণকারী মোঃ রাকিব ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট থানার চুয়ানো গ্রামের মৃত শফিকুলের ছেলে।

বাংলাদেশ পুলিশের এলিট ফোর্স র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) “বাংলাদেশ আমার অহংকার” এই স্লোগানকে বুকে ধারন করে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাসবাদ, চোরাচালন, মাদক, হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ড থেকে দেশকে রক্ষার জন্য নিরলসভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, যা ইতিমধ্যে জনমনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন থানাধীন ঢাকী পূর্বহাটি গ্রামের মোঃ দিদারুল ইসলাম গাজীপুরে চাকুরী করার সুবাদে তার সাথে আসামী অপহরণকারী চক্রের মূলহোতা মোঃ রাকিব সখ্যতা গড়ে তোলে এবং আসামী মোঃ রাকিব(২১) তার নাম ও পরিচয় গোপন রেখে মোঃ দিদারুল ইসলামকে ধর্মের ভাই বানায়। গত ০১ ডিসেম্বর আসামী মোঃ রাকিব বেড়ানোর কথা বলে মোঃ দিদারুল ইসলামের গ্রামের বাড়ীতে আসে। বেড়ানোর ছলে আসামী মোঃ রাকিব গত ০৪ ডিসেম্বর দুপুর ১২ ঘটিকায় মোঃ দিদারুল ইসলামের ০৭ বছরের ছোট ভাই মোঃ খোকা মিয়াকে মিঠামইন বাজারে ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাড়ী থেকে বাহির হয়। পরে ভিকটিম খোকা মিয়া ও আসামী মোঃ রকিব বাড়ীতে ফিরে না আসায় বাড়ীর লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকে এবং আসামী রকিবের ব্যক্তিগত মোবাইলে কল দিলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। অতঃপর গত ০৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬ ঘটিকায় আসামী মোঃ রাকিব তার ব্যক্তিগত নম্বার হতে ভিকটিমের পরিবারের সদস্যদের মোবাইলে ফোন করে মুক্তিপণ দাবী করে, অন্যথায় তাদের ছেলেকে জীবিত অবস্থায় ফেরত পাবে না বলে হুমকি দেয়। এ ঘটনায় তাৎক্ষনিকভাবে কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন থানায় ভিকটিমের বড় ভাই মোঃ দিদারুল ইসলাম ০১টি সাধারণ ডায়েরী করে এবং পাশাপাশি ভিকটিমের পরিবার ও মিঠামইন থানার অফিসার ইনচার্জ র‌্যাবকে অবগত করলে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং অপহরণকারীকে গ্রেফতারের জন্য র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্প নিরবিচ্ছিন্ন গোয়েন্দা নজরদারী সহ তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে আসামীর অবস্থান জানার চেষ্টা করে এবং তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে গাজীপুর চৌরাস্তা এলাকায় আসামীর অবস্থান নিশ্চিত করে।পরবর্তীতে গত ০৫ ডিসেম্বর ২১.০০ ঘটিকায় গাজীপুর চৌরাস্তা এলাকায় র‌্যাব-১, সিপিএসসি, গাজীপুর ক্যাম্পের সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়। কিন্তু আসামী অত্যন্ত চর্তুর হওয়ায় র‌্যাব ঘটনাস্থলে পৌছানোর পূর্বেই র‌্যাবের উপস্থিতি আন্দাজ করে ভিকটিমকে রেখে সে পালিয়ে যায়। ভিকটিমকে উদ্ধার করে মিঠামইন থানায় হস্তান্তর করা হয়। পাশাপাশি আসামীকে গ্রেফতারের জন্য র‌্যাবের প্রচেষ্টা অব্যহত থাকে।র‌্যাবের একান্ত নিরলস প্রচেষ্টায় গত ০৬ ডিসেম্বর ০২.২৫ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১৪, সদর ও সিপিএসসি ময়মনসিংহ এর সহায়তায় ময়মনসিংহ জেলার কোতোয়ালী থানাধীন রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় র‌্যাবের একটি চৌকশ আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে উক্ত অপহরণকারী চক্রের মূলহোতা আসামী মোঃ রাকিব (২১) কে গ্রেফতার করে।গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মিঠামইন থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।