ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে গলাচিপায় বেড়েছে নদীর পানি।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৪-০৫-২৬, ৬:২৩ অপরাহ্ন /
ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে গলাচিপায় বেড়েছে নদীর পানি।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত, ২৬,মে,২০২৪

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:

ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় “রেমাল”। আবহাওয়া অফিস পায়রা বন্দর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় ঘূর্ণিঝড় “রেমাল” এর ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি করেছে। ইতিপূর্বে ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় শনিবার (২৫ মে) দুপর ২টায় গলাচিপা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এবং “রেমাল” এর ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় কয়েকটি দূর্যোগ ব্যাবস্থাপনা কমিটি গঠন করা হয় (ক্ষয়ক্ষতি এড়ানো ও পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ কমিটি, কন্ট্রোল রুম পরিচালনা কমিটি, ইমারজেন্সি রেসপন্স টিম এবং মেডিকেল টিম কমিটিগুলো গতকাল দুপুর থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। বর্তমানে গলাচিপা উপজেলার উপকূলীয় এলাকায় বাতাসের গতিবেগ প্রায় ৫০ – ৬০ কি. মি. এবং নদীর পানির উচ্চতা স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪-৫ ফুট বেশি হয়েছে।

ক্রমশ আবহাওয়া পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় ঘূর্ণিঝড় ঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে, ১১৮ টি সাইক্লোন শেল্টার, ৩টি মুজিব কেল্লা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় রোমাল মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি কাজ করে যাচ্ছে থানার পুলিশ সদস্য, সিপিপি ভলান্টিয়ার, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টিম, রেড ক্রিসেন্ট সহ বিভিন্ন এনজিও কর্মীগণ। উল্লেখ্য, উপজেলায় চারটি ঝুঁকিপূর্ণ ভেরি ব্যাথ রয়েছে, এর ভিতরে একটিতে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় উপজেলা প্রশাসন একটি সংস্কার করেন।