গাজীপুরের কালীগঞ্জের বড়কাউ এলাকায় ভাতিজার আঘাতে চাচার মৃত্যুর ।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৪-০৬-২১, ৯:০৪ অপরাহ্ন /
গাজীপুরের কালীগঞ্জের বড়কাউ  এলাকায় ভাতিজার আঘাতে চাচার মৃত্যুর ।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,২১,জুন, ২০২৪

মোঃ মুক্তাদির হোসেন।
স্টাফ রিপোর্টার।

আজ বুধবার (১৯ জুন ২০২৪) বাদ আছর হরদী বাজার মসজিদের মৃত: নান্না মিয়ার নামাজ এ জানাজা হয়েছে।
ঘটনা সূত্রে জানা যায়, নান্না মিয়া ও তার ভাতিজা নুর ইসলাম উত্তরখান এলাকার কাঁচকুড়া বাজারে সবজির দাম নিয়ে তর্কাতর্কি হয়।
এক পর্যায় সবজি বিক্রয় নিয়ে চাচা ভাতিজার মাঝে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছ। ভাতিজা নুর ইসলাম চাচাকে আঘাত করলে চাচা নান্না মিয়া ঘটনাস্থলেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
আরো জানা যায, নিহত নান্না মিয়া বড়কাউ গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছোট ছেলে তিনি মৃত্যুকালে স্ত্রী ও সামিউল (৫)ও নাবিউল (৩) নামে দুই সন্তান রেখে যান।
এ বিষয়ে উত্তরখান থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।
পরে মৃতদেহটি নাগরী ইউনিয়নের হরদী বাজারে নিয়ে আসলে কালীগঞ্জ উলুখোলা ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই ফোরকান খাঁন মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহাম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করতে মৃতদেহটি কালীগঞ্জ থানায় নিয়ে আসেন। এ সময় সাংবাদিকেরা গঠনার বিষয় জানতে চাইলে, এস আই ফোরকার খান প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রোনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে অশোভনীয় আচরণ করেন। বিষয়টি কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহাতাব উদ্দিন কে মোবাইল ফোনে অবগত করা হয়।
পরের দিন বৃহস্পতিবার দুপুরে নান্না মিয়ার বাড়িতে গেলে পরিবারের লোকজন এর নিকট থেকে বিস্তারিত ঘটনা জানা যায়। বিকেলে ময়না তদন্তের শেষে মৃতদেহটি হরদী বাজারে নিয়ে আসলে বৃহস্পতিবার বাদ আছর জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার পরিদর্শক মাহতাব উদ্দিন জানান, যেহেতু উত্তরখান থানায় অভিযোগ হয়েছে যা করার উত্তরখান থানা করবেন।