গলাচিপায় নৌকার সমর্থক কৃষকলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম।


deshsomoy প্রকাশের সময় : ২০২৪-০১-১৩, ১০:১১ অপরাহ্ন /
গলাচিপায় নৌকার সমর্থক কৃষকলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম।
print news || Dailydeshsomoy

প্রকাশিত,১৩, জানুয়ারি,২০২৪

সঞ্জিব দাস,গলাচিপা পটুয়াখালী, প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার নির্বাচন-পরবর্তী সহায়তায় বিজয়ী নৌকার প্রার্থীর এক সমর্থককে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের কলা গাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
গুরুতর জখম ওই ব্যক্তির নাম অনিমেষ চন্দ্র সরকার (৪৫) পিতার নাম মৃত অরুণ চন্দ্র সরকার । তিনি উপজেলার কৃষক লীগের সহ-সভাপতি। তাকে গলাচিপা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নির্বাচনে পরাজিত ঈগল প্রার্থীর সমর্থকেরা এ হামলা করেছেন বলে অভিযোগ করেছে অনিমেষ চন্দ্র সরকারের পরিবার।
দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অনিমেষ চন্দ্র সরকার কলা গাছিয়া ইউনিয়নে পটুয়াখালী ৩ গলাচিপা দশমিনা আসনের নৌকার প্রার্থী এস এম শাহজাদা পক্ষে কাজ করেন ইউনিয়নে। বিপুল ভোট পেয়ে টানা দ্বিতীয়বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এস এম শাহজাদা। এ বিষয়ে আহত অনিমেষ চন্দ্র সরকার প্রতিবেদক কে বলেন, আমি কলাগাছিয়া ইউনিয়নে নৌকা মার্কার সমর্থনে কাজ করেছি প্রতিপক্ষরা আমাকে মেরে ফেলার জন্য পাঁয়তারা চালায় গত বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে আমার বাড়ির পূর্ব পাশে রাস্তার উপরে আমি ও আমার বড় ভাই কে হঠাৎ এলোপাথাড়ি ভাবে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে আমার ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এসে পড়লে মারধর কারীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী ওই রাতেই আমাকে গলাচিপা হাসপাতালে ভর্তি করে । এ বিষয়ে আহত অনিমেষ চন্দ্র সরকারের স্ত্রী শর্বরী রানী বলেন, আমার স্বামীর কাছে জমি বিক্রি করার প্রায় দুই লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা ছিল ডান হাতের আঙ্গুলের একটা আংটি ও মোবাইল সেট মারধর কারীরা নিয়ে যায়। আমি এর সঠিক বিচার চাই। গলাচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার ডাক্তার জুবায়ের আহমেদ বলেন ,অনিমেষ সরকারের আঙ্গুলে ও মাথায় সেলাই লেগেছে ও শরীরের বিভিন্ন অংশে কালো কালো দাগ দেখা গেছে আমার চিকিৎসা দিনে তৃতীয় তলায় এক নম্বর কেবিনে ভর্তি আছে। কলাগাছি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মাইনুল সিকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি মসিউর ইসলাম রুবেল বলেন, এই ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জানান প্রশাসনের কাছে। গলাচিপা কেন্দ্রীয় কালীবাড়ি কমিটির সভাপতি বাবু দিলীপ বণিক বলেন, কলাগাছিয়া মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক অনিমেষ সরকার তাকে মারধরের ঘটনায় প্রশাসনের সদয় দৃষ্টি কামনা করেন। এ বিষয়ে পূজো উদযাপন পরিষদের গলাচিপা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ও গলাচিপা প্রেসক্লাবের সভাপতি সমিত কুমার দত্ত মলয় বলেন, সঠিক তদন্ত করে আসামিদেরকে গ্রেফতারের দাবী জানান। হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের গলাচিপা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বাবু সমীর কৃষ্ণ পাল এ ঘটনায় জড়িতদেরকে শাস্তির দাবি জানান। গলাচিপা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাজী মুজিবুর রহমান এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। এ বিষয়ে আহত অনিমেষ সরকার বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় ১১ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নং ১০। গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি ফেরদৌস আলম খান বলেন , এক নম্বর আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে ।বাকিদের গ্রেপ্তারের প্রক্রিয়া চলছে। অভিযান অব্যাহত থাকবে।